+
রোবট নেবে চাকরির ইন্টারভিউ
  রোবট নেবে চাকরির ইন্টারভিউ

রোবট নেবে চাকরির ইন্টারভিউ

বাংলাদেশে গড়ে উঠেছে ‘রোবট রেস্টুরেন্ট’। ভারতের প্রথম রোবট পুলিশ ও জাপানের ম্যারেজ মিডিয়ায় ঘটকের কাজ করছে রোবট। রোবটকে বিভিন্নভাবে কাজে লাগানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এবার চাকরির ইন্টারভিউ বোর্ডে দেখা যাবে রোবটকে।

তবে এখন কথা হচ্ছে মানুষ বাদে রোবট যদি চাকরির ইন্টারভিউ নেয় তবে কেমন হবে।সুইডেনে এখন চাকরির ইন্টারভিউ নিচ্ছে রোবট। চাকরির ইন্টারভিউ ব্যবস্থাকে শতভাগ নিরপেক্ষ করতে রোবট ব্যবহার করা হচ্ছে। এই রোবটির নাম টেংগাই।ইতিমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে এই রোবটের ব্যবহারও শুরু করা হয়েছে। রোবটটি পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহার করছে দেশটির সবচেয়ে বড় একটি রিক্রুটিং এজেন্সি।কর্মী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে পক্ষপাত এবং বৈষম্যের অভিযোগ আছে সুইডেনে। তারা বিদেশিদের কাজ দিতে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করে। অনেক দিন ধরেই সুইডেনের শ্রমবাজারে সব জাতিবর্ণের মানুষ সমান সুযোগ পাচ্ছে কিনা, তা নিয়ে বিতর্ক চলছিল। বিশেষ করে সুইডেনে থাকা যেসব মানুষের জন্ম বিদেশে তাদের ক্ষেত্রে বেকারত্বের হার ১৫ শতাংশ। ইউরোপে কোনো জনগোষ্ঠীর এটাই হচ্ছে বেকারত্বের সর্বোচ্চ হার।

সুইডেনের সবচেয়ে বড় একটি রিক্রুটিং এজেন্সি হচ্ছে টিএনজি প্রধান উদ্ভাবনী কর্মকর্তা এলিনা ওবারমার্টিনজন ।এলিনা ওবারমার্টিনজন বলেন, চাকরির ইন্টারভিউতে পক্ষপাত একটি বড় সমস্যা।টিএনজি মনে করছে চাকরির ইন্টারভিউতে পক্ষপাতমূলক এই সমস্যার সমাধান দেবে রোবট।তাই চাকরির ইন্টারভিউতে টেংগাই নামের রোবটটি এই রিক্রুটিং এজেন্সি ব্যবহার করছে।জানা গেছে, টেংগাই রোবটি মানুষের মতো চোখের পাতা ফেলতে পারে, হাসতে পারে ও বিভিন্ন অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে। সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে টেংগাই এখন সুইডিশ ভাষায় চাকরির ইন্টারভিউও নিতে পারে।এলিনা ওবারমার্টিনজনের দাবি, যারা ইন্টারভিউ দিতে আসছে তাদের উত্তরের ভিত্তিতেই যোগ্য প্রার্থী খুঁজে বের করবে এলিনা। এক্ষেত্রে কোনো পক্ষপাত থাকবে না।

এখন প্রশ্ন হলো, চাকরিপ্রার্থীরা কি রোবটের কাছে ইন্টারভিউ দিতে রাজি হবেন? এলিনা জানান, কারো প্রতি অবচেতন পক্ষপাত দেখায় না টেংগাই। সবাইকে ও সমানভাবে দেখে।তাই চাকরির ইন্টারভিউতে টেংগাইকে ব্যবহার করা সবাই স্বাভাবিকভাবেই নেবে।রোবটটি তৈরি করেছে স্টকহোমের রয়্যাল ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির একটি স্টার্টআপ কোম্পানি। পক্ষপাত তৈরি না হয়, সেটি তারা সবসময় যাচাই করছে। তবে চাকরির ইন্টারভিউতে টেংগাইকে ব্যবহার সবাই মেনে নিতে পারেনি।তাদের একজন ড. মার্টিন লিন্ডলা। তিনি বলেন, আমার বিশ্বাস করতেই কষ্ট হচ্ছে যে রিক্রুটিং ম্যানেজাররা তাদের কর্মী বাছাইয়ের জন্য একটি রোবটের ওপর নির্ভর করছে।টেংগাই সুইডেনে চাকরির ইন্টারভিউ নিতে এই রোবটটি ব্যবহার করা হচ্ছে। তবে টেংগাইয়ের সঙ্গে কথা বলে চাকরিপ্রার্থী ইক্যাটেরিনা বেশ খুশি বলে দাবি করেছে রিক্রুটিং এজেন্সিটি ।

সূত্র : বিবিসি



Published: 2019-03-28 12:16:00