+
বোলারদের পেটাতে পারব গেইল
 বোলারদের পেটাতে পারব গেইল

বোলারদের পেটাতে পারব গেইল

বয়স ৪০ ছুঁই ছুঁই। এ বয়সেও সেই আগের মতো কথা বলছে তার ব্যাট। বোলারদের চোখের পানি, নাকের জল এক করে ছাড়ছেন। আক্রমণাত্মক ও খুনে মেজাজী ব্যাটিংয়ে ছোটাচ্ছেন রানের ফোয়ারা। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল মনে করেন, ৬০ বছর বয়সেও এভাবেই বোলারদের পিটিয়ে তুলোধুনো করতে পারবেন।

দীর্ঘদিন পর জাতীয় দলে ফিরেছেন গেইল। প্রত্যাবর্তনটাও হয়েছে রাজকীয়। ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বইয়ে দিয়েছেন রানের নহর। ব্যাটকে তলোয়ার বানিয়ে ইংলিশ বোলারদের করেছেন কচুকাটা। প্রতিপক্ষের ঘুম কেড়ে নিয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। একটি বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় শেষ পর্যন্ত ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ ২-২ সমতায় সমাপ্ত হয়েছে। ৪ ইনিংসে ২টি করে সেঞ্চুরি ও হাফসেঞ্চুরিতে ৪২৪ রান করেছেন গেইল। হয়েছেন প্লেয়ার অব দ্য সিরিজ। এ পথে সাজিয়েছেন রেকর্ডের পসরা। ওলটপাল্ট করে দিয়েছেন রেকর্ড বুক। দ্বিতীয় উইন্ডিজ ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ছুঁয়েছেন ১০ হাজার রানের মাইলফলক। শহীদ আফ্রিদিকে টপকে হয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ছক্কার মালিক। দ্বিপক্ষীয় সিরিজে সর্বোচ্চ ছক্কার (৩৯) হাঁকানোরও রেকর্ড গড়েছেন।

স্বঘোষিত ইউনিভার্স বসের দাবি, ৬০ বছর বয়সেও এমন বিধ্বংসী মানসিকতা থাকবে। তখনও এভাবেই ব্যাটিং করবেন। সেই বয়সেও ছক্কা মারার ক্ষমতা ফুরিয়ে যাবে না।
ক্যারিবীয় বিস্ফোরক ওপেনার বলেন, এক সিরিজে ৩৯টি ছক্কা। কম কথা নয়। এই বয়সে নিঃসন্দেহে এটি বিশাল ব্যাপার। আমার ৬০ বছর হলেও এমন মানসিকতাই থাকবে। বিশ্বসেরা যেকোনো বোলারের বিপক্ষে রান করার সামর্থ্য আমার আছে। সেটা কখনও বদলাবে না। তবে খেলার জন্য শরীরকে সায় দিতে হবে। ফিটনেস থাকবে কি না, সেটাই ভাবার বিষয়। গেইল সিরিজ শুরুর আগেই জানিয়েছেন, আসন্ন বিশ্বকাপ শেষেই ওয়ানডে থেকে অবসর নেবেন। তবে ব্যাট হাতে যে ফর্মে আছেন, তাতে বিশ্বকাপটা তার শেষ টুর্নামেন্ট মনে করতে পারছেন না অনেকে। কিন্তু সিরিজ শেষেও একই কথা পুনর্ব্যক্ত করেছেন তিনি। তবে বিশ্বের বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলা চালিয়ে যাবেন টি-টোয়েন্টি কিং।



Published: 2019-03-05 16:00:41