+
তারেক রহমানের একটি মামলাও প্রমাণ করতে পারেনি: ফখরুল
তারেক রহমানের একটি মামলাও প্রমাণ করতে পারেনি: ফখরুল

তারেক রহমানের একটি মামলাও প্রমাণ করতে পারেনি: ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তারেক রহমান সম্পর্কে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অবিরত মিথ্যা প্রচার চালানো হচ্ছে। অথচ আজ পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে একটি মামলাও তারা প্রমাণ করতে পারেনি। যে বিচারক তাকে মুক্তি দিয়েছিলেন, তাকে শেষ পর্যন্ত দেশ ছেড়ে চলে যেতে হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১৩তম কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উত্তরাঞ্চল ছাত্র ফোরাম এবং বাংলাদেশ ছাত্র ফোরাম যৌথভাবে এই সভার আয়োজন করে।

জনগণ বিএনপির পক্ষে আছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপির শক্তি কোথায়? বিএনপির শক্তি সাধারণ মানুষের কাছে।তাই কোনো শক্তিই বিএনপির চেয়ারপারসন ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনসহ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে পার পাবে না। জনগণ রুখে দাঁড়াবে। বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে দলটির মহাসচিব বলেন, সারাদেশে লাখ লাখ নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলায় জড়ানো হয়েছে। এর উদ্দেশ্য কী? উদ্দেশ্য একটাই-এই (বিএনপির) রাজনীতি যারা করে, এই রাজনীতির চিন্তা যারা ধারণ করে তাদেরকে নিশ্চিহ্ন করে দিতে হবে। কিন্ত এই রাজনীতি সাধারণ মানুষ করে।এটিকে মানুষের হৃদয় থেকে সরানো যাবে না।

 

বিএনপিকে ধ্বংস করা যাবে না মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা বারবার লক্ষ্য করেছি, বিএনপিকে যত ধ্বংস করে ফেলার চেষ্টা করা হয়, বিএনপি আবার ফিনিক্স পাখির মতো জেগে ওঠে। কারণ এই রাজনীতি মানুষের অন্তরে গেঁথে আছে। গ্যাসের দাম বৃদ্ধির উদ্যোগের সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, গ্যাসের দাম বাড়ানো যাবে না। বাড়ালে জনগণ তা প্রতিহত করবে। তিনি বলেন, এই সরকার তাদের দুর্নীতিকে ঢেকে রাখার জন্য সব রকম আর্থিক ব্যয় জনগণের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে। গ্যাসের দাম বাড়ানোর কথা চিন্তা করা হচ্ছে।

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সহ-সভাপতি নাজমুল হাসানের সঞ্চালনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ইকবাদ হাসান মাহমুদ টুকু, বরকত উল্লাহ বুলু, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলাল প্রমুখ। 



Published: 2019-03-05 15:20:01