+
কী আছে বিশ্বের দীর্ঘতম লবণের গুহায়
কী আছে বিশ্বের দীর্ঘতম লবণের গুহায়

কী আছে বিশ্বের দীর্ঘতম লবণের গুহায়

ডেড সির কাছেই বিশ্বের দীর্ঘতম সল্ট কেভ বা লবণগুহা আবিষ্কার করেছেন ইসরাইলের গুহা সন্ধানীরা। এর আগে ইরানের দখলে ছিল এ রেকর্ড। এ গুহাটির নাম মালহাম।

১০ কিলোমিটারব্যাপী বিস্তৃত মালহাম গুহা। এটি ইসরাইলের সবচেয়ে বড় পাহাড় সোদম পাহাড় বেয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কাছে মৃত সাগর বা ডেড সিতে গিয়ে শেষ হয়েছে।
হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গুহা গবেষণাকেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ফ্রামকিন আশির দশকে গুহাটির প্রায় পাঁচ কিলোমিটার মানচিত্র তৈরি করেছিলেন। ইরানের কেশম দ্বীপে ছয় কিলোমিটারব্যাপী এন৩ গুহা আবিষ্কার করে। ফলে সারা বিশ্বে দীর্ঘতম লবণগুহার স্বীকৃতি পায়। যা করা হয়েছিল ২০০৬।এদিকে দুই বছর আগে ইসরাইলি জোভ নেগেভ ফ্রামকিন অসমাপ্ত কাজ শেষ করার উদ্যোগ নেন। এতে তিনি বুলগেরিয়ার গুহা সন্ধানীদের অন্তর্ভুক্ত করেন। ইউরোপিয়ান ৮টি এবং স্থানীয় ২০টি মোট ২৮টি দল নিয়ে নেগেভ একটি টিম গঠন করেন। এ দলের সঙ্গে থাকেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক বোয়াজ ল্যান্ডফোর্ড ও তার দল। ২০১৮ সালে প্রায় ১০ দিন ধরে গুহার মানচিত্র তৈরি করেন এ সম্মিলিত দলটি।

পরে চলতি বছর দ্বিতীয় দফা ১০ দিনের অভিযান চালিয়ে গুহাটির ১০ কিলোমিটারের বেশি এলাকা চিহ্নিত করেন তারা।তাদের চোখে এটি পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর জায়গা। সোদম পাহাড় একটি বিশাল লবণের ব্লক। মরুভূমির দুর্লভ বৃষ্টিপাথরের আস্তরণে আটকে থাকে। ফলে পানিতে লবণ গলে দীর্ঘদিন ধরে জমে জমে ডেড সি বা মৃত সাগরের দিকে গুহার রূপ নিয়েছে।জানা গেছে, মরুভূমি থেকে উড়ে আসা ধুলোর কারণে গুহার অভ্যন্তরে তৈরি হয়েছে বিচিত্র নকশা। বিশালাকার লবণ ফলক, আম্বার বর্ণের ধুলো আর খনিজ মিলে নাটকীয় সৌন্দর্য ধারণ করেছে গুহাটিতে।নেগেভের দাবি, গোটা ইসরাইলে এমনটি আর কোথাও নেই। ইসরাইলের ১০ কিলোমিটারের ধারে কাছেও আর কোনো গুহা নেই। ইসরাইলের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও জটিল একটি কাঠামো। তার দেখা একটি মন্ত্রমুগ্ধকর সৌন্দর্য মালহাম।



Published: 2019-03-29 20:25:46